মেনু নির্বাচন করুন
খবর

নকলায় বাল্যবিবাহ প্রতিরোধ মঞ্চের আত্মপ্রকাশ

শেরপুরের নকলা উপজেলাকে বাল্যবিবাহমুক্ত উপজেলা হিসেবে ঘোষণা করার লক্ষ্যে উপজেলার মাধ্যমিক পর্যায়ের ৪৩টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের একটি কক্ষকে ‘বাল্যবিবাহ প্রতিরোধ মঞ্চ’ হিসেবে ঘোষণা করা হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে উপজেলা পরিষদ প্রাঙ্গণে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) রাজীব কুমার সরকার এ ঘোষণা দেন।

এ সময় উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে উপজেলার ৪৩টি মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও মাদ্রাসার ৩৪৪ জন স্টুডেন্ট কেবিনেট সদস্যের মধ্যে ‘বাল্যবিবাহ প্রতিরোধ মঞ্চ’ লেখাসংবলিত টি-শার্ট ও ক্যাপ বিতরণ করা হয়। সেই সঙ্গে তাদের নিজ নিজ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের নামে তৈরি করা ‘বাল্যবিবাহ প্রতিরোধ মঞ্চ’র নামফলক প্রদান করা হয়।

আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন ইউএনও রাজীব কুমার সরকার। বক্তব্য দেন উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতা মোস্তাফিজুর রহমান ও শফিকুল ইসলাম, উপজেলা পরিষদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান সারোয়ার আলম তালুকদার, পৌর মেয়র হাফিজুর রহমান, জেলা পরিষদের সদস্য ছামিউল হক, নকলা থানার ওসি খান আবদুল হালিম সিদ্দিকী, মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মোহাম্মদ আবদুর রশীদ, মহিলাবিষয়ক কর্মকর্তা আরমানা হক, নয়াবাড়ি উচ্চবিদ্যালয় ও নকলা মডেল পাইলট মডেল উচ্চবিদ্যালয়ের স্টুডেন্টস কেবিনেট সদস্য যথাক্রমে হ্যাপি আক্তার ও সাজেদুর রহমান।

রাজীব কুমার বলেন, শেরপুরের প্রথম উপজেলা হিসেবে নকলাকে এ মাসেই বাল্যবিবাহমুক্ত ঘোষণা করা হবে। এর অংশ হিসেবে উপজেলার সব মাধ্যমিক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ‘বাল্যবিবাহ প্রতিরোধ মঞ্চ’ প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে। এ মঞ্চের মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানের স্টুডেন্ট কেবিনেট সদস্যরা নিজ নিজ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ও এলাকার বাল্যবিবাহ প্রতিরোধে কাজ করবে। পরে ইউএনও অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণকারীদের শপথবাক্য পাঠ করান।

ছবি


ফাইল


প্রকাশনের তারিখ

২০১৮-০১-১০

আর্কাইভ তারিখ

২০১৮-০৮-৩০


Share with :
Facebook Twitter